Home | Profile | Credit History | Withdraw Details | Withdraw | Apps | FB Group | Login | Registration
Are You New? Please Visit: How To Work..
যে সব কারণে আইডি ব্যান করা হবে ..বিস্তারিত..
User IP - 3.232.129.123
Please Go "How to Work" page If you are New in this site...


হাঁটার ১০টি উপকারিতা

হাঁটার ১০টি উপকারিতা

সিটিনিউজ ডেস্ক:: হাঁটা সবচেয়ে সহজ ব্যায়াম। ছোট-বড় যে কেউ নিয়মিত হাঁটার অভ্যাস করতে পারেন। প্রশ্ন জাগতে পারে ব্যায়ামের জন্য এত কিছু থাকতে হাঁটা কেন গুরুত্বপূর্ণ? হাঁটলে প্রাকৃতিকভাবে পাবেন সুস্থতা ও প্রাণবন্ত অনুভূতি। আরও রয়েছে শত উপকার। স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট টেসকো লিভিং ডটকম থেকে নেওয়া হাঁটার ১০টি উপকারিতা নিয়ে এই প্রতিবেদন।

১. সুস্থ হৃদপিণ্ড, সুন্দর জীবন যারা নিয়মিত হাঁটাহাঁটি করেন তাদের হার্টের অসুখ ও স্ট্রোকের ঝুঁকি অনেকাংশে কমে যায়। এছাড়া হাঁটার সময় শরীর থেকে ক্ষতিকর কোলেস্টেরল এলডিআর কমে যায় ও ভালো কোলেস্টেরল এইচডিআর-এর মাত্রা বেড়ে যায়। এছাড়া শরীরের রক্তচলাচল স্বাভাবিক থাকে।

এ বিষয়ে যুক্তরাজ্যের স্ট্রোক এসোসিয়েশনের এক গবেষণায় দেখা গেছে, যারা প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট হাঁটেন, তাদের উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি অনেকাংশে কমে যায়। যাদের উচ্চরক্তচাপ রয়েছে, তাদের উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ হয়। এছাড়া নিয়মিত হাঁটার অভ্যাস করলে শতকরা ২৭ ভাগ পর্যন্ত উচ্চরক্তচাপজনিত সমস্যা কমে। ফলে হার্টের বিভিন্ন রোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমে যায়।

এদিকে আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, নিয়মিত হাঁটার অভ্যাস করলে করোনারি হৃদরোগের ঝুঁকি অনেকাংশে কমে যায়। রক্তে চিনির মাত্রা স্বাভাবিক রাখতে ও স্থূলতার ঝুঁকি কমাতে নিয়মিত হাঁটার পরামর্শ দিয়েছেন হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের বিশেষজ্ঞরা।

২. বাড়বে সুস্থতা যাদের ডায়াবেটিস রয়েছে ডাক্তারের পরামর্শে তারা নিয়মিত হাঁটাহাঁটি করেন। এতে অবশ্য তারা উপকার পান। মজার কথা এতে টাইপ টু ডায়াবেটিসের ঝুঁকিও কমে যায়। ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নাল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, নিয়মিত হাঁটলে ৬০ ভাগ পর্যন্ত কোলন ক্যান্সার ও স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে। এটা স্বাস্থ্যের জন্যও খুব ভালো।

৩. ওজন নিয়ন্ত্রণের অসাধারণ ব্যায়াম ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিভিন্ন রকম ব্যায়াম করতে দেখা যায়। যদি ওজন কমাতে চান, তবে প্রতিদিন ৬০০ ক্যালরি পুড়িয়ে ফেলতে হবে। যেটা একদিনের খাবার থেকে প্রাপ্ত ক্যালরির চেয়ে বেশি। যার ওজন ৬০ কেজি তিনি যদি প্রতিদিন ঘণ্টায় ২ মাইল গতিতে ৩০ মিনিট হাঁটার অভ্যাস করেন, তবে ৭৫ ক্যালরি শক্তি ক্ষয় করতে পারেন। যদি ঘণ্টায় ৩ মাইল গতিতে হাঁটতে অভ্যস্ত হন তবে, ৯৯ ক্যালরি পুড়িয়ে ফেলতে পারেন। ঘন্টায় ৪ মাইল গতিতে হাঁটলে আরও বেশি ক্যালরি ক্ষয় করতে পারবেন। এতে ক্যালরি ক্ষয়ের পরিমাণ দাঁড়াবে ১৫০। হাঁটলে দেহের পেশীগুলো আরও প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে।

৪. স্মৃতিশক্তি বাড়ে বয়স বাড়ার সঙ্গে সাধারণত মানুষের স্মৃতিশক্তি কমে যায়। ৬৫ বা এর বেশি বয়সীদের মধ্যে প্রতি ১৪ জনের মধ্যে ১ জনের স্মৃতিভ্রম হয়। আর ৮০ বা এর বেশি বয়সীদের ৬ জনের মধ্যে ১ জনের দেখা দেয় স্মৃতি হারানোর রোগ। নিয়মিত বিভিন্ন ব্যায়াম অনুশীলনে মস্তিষ্কে রক্তচলাচল বাড়ে। এতে স্মৃতিহানি হওয়ার ঝুঁকি ৪০ ভাগ পর্যন্ত কমে যায়। যুক্তরাজ্যে এক গবেষণায় দেখা গেছে, বয়স্কদের মধ্যে যারা সপ্তাহে অন্তত ৬ মাইল পথ হাঁটেন তাদের স্মৃতিশক্তি অটুট থাকে।

৫. জয়েন্টে ব্যথার ঝুঁকি নেই নিয়মিত হাঁটাচলা করলে শরীরের বিভিন্ন জয়েন্টে ব্যথার ঝুঁকি কমে যায়। সাধারণত বয়স বেড়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মহিলাদের শরীরের বিভিন্ন হাড় ও সংযোগস্থলে ব্যথা করে। শরীরের জয়েন্টগুলোকে সুস্থ রাখতে হাঁটা নিঃসন্দেহে খুবই কার্যকর ব্যায়াম।

৬. পায়ের শক্তি বাড়ায় হাঁটলে শুধু পায়ের শক্তিই বাড়ে না পায়ের আঙুলেরও ব্যায়াম হয়। এছাড়া কোমর এবং শরীরের অন্যান্য অঙ্গ নড়াচড়ার কারণে স্বাভাবিকভাবেই সুস্থ থাকে।

৭. বাড়ে পেশীশক্তি হাঁটলে শুধু পা চলে না দুহাতও সমান তালে চলে। এতে হাতের প্রতিটি জয়েন্ট, ঘাড় ও কাঁধের ব্যায়াম হয়। ব্যাকপেইনের সমস্যা কমে যেতে পারে নিয়মিত ব্যয়ামের মাধ্যমে।

৮. ভিটামিন ডি দিনের আলোতে, বিশেষ করে সকালে হাঁটার অভ্যাস করলে শরীর ভিটামিন ডি-তে সমৃদ্ধ হয়ে ওঠে। দৈনন্দিন খাবার থেকে খুব অল্প পরিমাণে ভিটামিন ডি পাওয়া যায়। ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত ৪ হাজার ৪৪৩ জনের শরীরে ভিটামিন ডি-এর প্রভাব নিয়ে গবেষণা করে। দেখা গেছে যাদের শরীরে ভিটামিন ডি পর্যাপ্ত রয়েছে তারা অন্যদের তুলনায় অন্তত দ্বিগুণ সময় রোগটির সঙ্গে লড়াই করে বেঁচে থাকতে পারে।

গবেষকরা আরও জানান, ভিটামিন ডি অন্যান্য কোষের মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থাকে সক্রিয় করে। এতে ক্যান্সারে আক্রান্ত কোষ সহজে অন্যকোষে ছড়িয়ে পড়তে পারে না। এ জন্য হাঁটা হতে পারে উত্তম ব্যায়াম।

৯. প্রাণবন্ত শরীর ও মন সকালের প্রকৃতি এমনিতেই থাকে স্নিগ্ধ। এ সময় হাঁটার মজাই আলাদা। প্রকৃতির সৌন্দর্য উপভোগের সময় মন স্বাভাবিকভাবেই ফুরফুরে থাকে, শরীর ও মন সতেজ হয়। শরীরের প্রতিটি জয়েন্টে অক্সিজেনের প্রাণপ্রবাহে মাংসপেশীগুলো শিথিল ও রিলাক্সড হয়।

১০. সুখ প্রতিক্ষণ যাদের নিয়মিত হাঁটার অভ্যাস, তাদের সঙ্গীর অভাব হয় না। একজন আরেকজনের সঙ্গে ভাগাভাগি করেন আনন্দের মুহূর্তগুলো। সামাজিক পরিমণ্ডলে প্রভাব বাড়ার পাশাপাশি মানসিকচাপ ও টেনশন কমে শুরু করে।

ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ার এক জরিপে দেখা গেছে, নিয়মিত হাঁটাচলা করলে একাকিত্বের অনুভূতি থেকে নিজেকে মুক্ত রাখা যায়। এছাড়া জরিপে অংশ নেওয়া ৮৩ ভাগ মানুষ জানিয়েছেন নিয়মিত হাঁটার অভ্যাস করলে মেজাজ নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ হয়। এতে মানসিক স্বাস্থ্যও ভালো থাকে।



Share This News:


Top News (Per News Read = .20 Credit)

ঘুম কমের কারণে যে ক্ষতিগুলো হয় - online bangla health news earning point

মানুষের স্বাভাবিক জীবন-যাপনের মধ্যে অন্যান্য কাজের মতোই ঘুম খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ডাক্তারদের মতে, একজন সুস্থ মানুষের দৈনিক আট ঘণ্টা ঘুমের দরকার। অনেকে আছেন রাতে টেলিভিশন দেখে, গল্প-গুজব করে ঘুমাতে যান দেরি করে। অনেকে মনে করেন কয়েক ঘণ্টা ঘুমিয়েও তো দিনে ভালোভাবে কাজ

Read More....


শিক্ষাব্যবস্থায় আইসিটির প্রভাব - Earning point

সাম্প্রতিক বছরগুলিতে, বেশ কয়েকটি গবেষণা এবং প্রতিবেদনে শিক্ষার মান উন্নয়নের জন্য তথ্য এবং যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) এর সম্ভাব্য সুযোগগুলি এবং সম্ভাব্য সুবিধাগুলি তুলে ধরেছে।

আইসিটিকে "জ্ঞান সমিতি গঠনের প্রধান হাতিয়ার" হিসাবে দেখা হয় (ইউনেস্কো ২

Read More....


জয়প্রিয় মোবাইল গেইমস পাবজি - earning point game news

আধুনিক এই বিশ্বে কিশোর এবং যুবক সমাজের বিনোদনের একটি মাধ্যম কম্পউটার বা মোবাইল গেইমস। অতঃপর গেইমস নির্মাতাদের মধ্যে সবসময়ই একটি প্রতিযোগিতা লেগেই থাকে। এরূপ প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে গেইমসটি অবশ্যই উচ্চমানের এবং গেইমারদের দৃষ্টি আকর্ষণীয় হওয়া আবশ্যক।

Read More....


Reasons for falling behind in job competition - earning point dot club

Reasons For Falling Behind In The Job Competition in this technology based era,competition has been rising day by day. That's why people are getting much busy in their personal life. They are becoming competitor with each other.On the other side,lack of competition can hurt macroeconomic performance.

Nowadays,competition in all types of job sector is gradually developed.At present looking for a job is getting close in finding a golden deer.In this situation one might survive to cope with this competition. In our universe,every person has a unique specialty which is different with one another.Besides employees have some common impotence. There are some reasons for lagging behind

Read More....


গুগল এডসেন্সে আবেদন করার আগে যে বিষয়গুলোর প্রতি লক্ষ রাখতে হবে- earning point

১৷ প্লাটফর্ম নির্বাচন: ব্লগার, ওয়ার্ডপ্রেস, জমুলা বা দ্রুপাল আপনার যেটাতে সুবিধা সেটা ব্যবহার করুন৷ গুগলের তাতে কিছু যায় আসে না ৷ তবে পাবলিশারদের কাছে ব্লগার ও ওয়ার্ডপ্রেস বেশি জনপ্রিয়৷

২৷ আর্টিকেল লিখা: সবসময় ইউনিক আর্টিকেল লিখতে হবে৷ আপনি যেকোনো বিষয়ে আ

Read More....


WordPress সম্পর্কে কিছু ভূল ধারণা- Earning point dot club

বর্তমান বিশ্বের জনপ্রিয়  সিএমএস বা ওয়েবসাইট প্লাটফর্ম গুলোর মধ্য WordPress অন্যতম ৷ এক জরিপে দেখা গেছে বিশ্বের প্রায় ২২% ওয়েবসাইট তাদের প্লাটফর্ম হিসেবে WordPress ব্যবহার করে থাকে৷ আমাদের মধ্যে অনেকেরই WordPress সম্পর্কে কিছু ভূল ধারণা রয়েছে ৷ আজ আপনাদেরকে WordPress সম্পর্কে কিছু ভূ

Read More....


বিজ্ঞানের সুবিধা গ্রহনের ফলে মানবজীবনের অপ্রত্যাশিত বিপরীত - earning point

বিজ্ঞানের অবদানে মানুষের প্রত্যাহিক জীবনের সমৃদ্ধ ও সুখময় হয়ে উঠলেও বিজ্ঞান মানুষকে অনেকটা আরামপ্রিয় ও বিলাসী করে তুলেছে। বিজ্ঞানের কল্যাণে প্রত্যাহিক চাহিদা পূরণ সহজ হওয়ায় মানুষ ক্রমেই হয়ে পড়েছে শ্রমবিমুখ। বিজ্ঞানের শাখার একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায়

Read More....


রাত জেগে কাজ করলেই নিশ্চিত মৃত্যু

লাইফস্টাইল :: কেন এমন কথা বলছি তাই ভাবছেন তো? আসলে সম্প্রতি প্রকাশিত একটি গবেষণা পত্রে এমনটা দাবি করা হয়েছে যে দিনের পর দিন যদি মেয়েরা রাত জেগে কাজ করেন, তাহলে তাদের ব্রেস্ট, স্কিন এবং স্টামাক ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। ফলে মৃত্যু বিষ জীবনকে গ্রাস

Read More....



Developed by: Sakil Suva

A Child Site of Earning Point